DailyMoulvibazar.com
মৌলভীবাজারবুধবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২২
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. এভিয়েশন
  6. করোনা সর্বশেষ
  7. কৃষি ও প্রকৃতি
  8. ক্যাম্পাস
  9. খেলা
  10. গণমাধ্যম
  11. চাকুরি
  12. ছোটদের পোস্ট
  13. জাতীয়
  14. জোকস
  15. ট্যুরিজম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

অস্থায়ী চালকে চলে মসিকের ময়লার ট্রাক, মানে না সময়

নিউজ ডেস্ক
ডিসেম্বর ২২, ২০২১ ৮:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

স্টাপ রিপোর্টার:: অস্থায়ীভাবে নিয়োগ দেওয়া চালক দিয়ে চলছে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের (মসিক) ময়লার ট্রাক। ময়লা ফেলার জন্য ট্রাকের পাশাপাশি ব্যবহার করা হয় পাওয়ার ট্রলি। রাত ১০টার পরে ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করার নিয়ম থাকলেও মানছেন চালক ও ময়লা ফেলার কাজে নিয়োজিত সংশ্লিষ্টরা। তারা সারাদিনই ময়লা বহন করেন বলে অভিযোগ। সিটি করপোরেশনের সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নগরবাসী নির্দিষ্ট স্থান ও সময়ে ময়লা ফেলেন না।

সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের দাবি, ময়লা ফেলা নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। সেই ভিডিও ফুটেজ দেখে নিয়মিত নগরবাসীকে জরিমানা করেও তাদের নির্দিষ্ট স্থান ও নির্দিষ্ট সময়ে ফেলা যাচ্ছে না। যে কারণে নির্দিষ্ট সময়ে নগরী থেকে ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করা যাচ্ছে না।

jagonews24

সম্প্রতি সরেজমিনে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘুরে মসিকের ময়লার ট্রাক ও পাওয়ার ট্রলির বিভিন্ন অনিয়ম চোখে পড়ে।

মসিকের ময়লা-আবর্জনা ফেলা হয় নগরীর ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের পাটগুদাম ব্রিজ-শম্ভুগঞ্জ মহাসড়কের পাশে। সকালের দিকে সেখানে গিয়ে কথা হয় আবুল হোসেন নামে মসিকের এক শ্রমিকের সঙ্গে। তিনি বলেন, সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত আমি এখানে কাজ করি। কোনো ট্রাক এলে কোথায় কীভাবে ময়লা ফেলতে হবে তা দেখিয়ে দিই।

jagonews24

‘আমাদের সব ট্রাক ও পাওয়ার ট্রলিচালকদের কাগজপত্র আছে। তবে কিছু কিছু চালকের লাইসেন্স নবায়ন করার জন্য বলেছে সিটি করপোরেশন। সেগুলো করার প্রক্রিয়া চলছে। সম্প্রতি রাজধানীতে ময়লার ট্রাকের ধাক্কায় এক শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনার পর সিটি করপোরেশনের চালকদের সতর্ক করে নিয়ম অনুযায়ী গাড়ি চালানোর কথা বলা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে হয়তো তাদের গাড়ি চালানোর বিষয়ে সচেতনতামূলক ট্রেনিং করানো হবে।’

মসিকের ট্রাকচালক আরিফুল হক বলেন, দুই বছর ধরে সিটি করপোরেশনের ময়লার ট্রাক চালাচ্ছি। লাইসেন্স পাওয়ার সব কার্যক্রম শেষ। এখনো লাইসেন্স পাইনি। বিআরটিএ থেকে একটি রিসিট দিয়েছে। তা দিয়েই গাড়ি চালাচ্ছি। অল্প কিছু দিনের মধ্যে লাইসেন্স পাবো।

jagonews24

এ বিষয়ে কথা হয় আরও এক ট্রাকচালক রফিকুল ইসলামের সাথে। তিনি বলেন, আমি প্রায় ১৭ বছর ধরে ট্রাক চালানোর কাজ করি, তাছাড়া আমার ড্রাইভিং লাইসেন্স আছে।

লাইসেন্স দেখতে চাইলে পকেটে হাত দিয়ে বলেন, লাইসেন্স বাসায় রেখে আসছি।

মসিকের সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) মো. শফি কামাল বলেন, নগরীর ময়লা-আবর্জনা ফেলার জন্য ২৪টি ট্রাক ব্যবহার করা হয়। এদের মধ্যে দুইজন স্থায়ী নিয়োগপ্রাপ্ত। এছাড়া পাওয়ার ট্রলি আছে ২৪টি।

তিনি আরও বলেন, ট্রাকগুলো চালানোর জন্য ২২ জনসহ মোট ৩৫ জন অস্থায়ী নিয়োগে কাজ করছেন। এছাড়া পাওয়ার ট্রলি চালকদের কোনো লাইসেন্স নেই।

jagonews24

মসিকের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মো. আরিফুর রহমান বলেন, নগরীতে দৈনিক প্রায় ৪৮০ টন ময়লা-আবর্জনা হয়। সব ময়লাই রাতে ফেলে দেওয়া হয়। তবে কিছু সরকারি প্রতিষ্ঠানে রাতে ঢুকতে না দেওয়ায় দিনে ময়লা আনা হয়। যে কারণে কিছু ময়লার ট্রাক দিনের বেলায়ও চলতে দেখা যায়।

এ বিষয়ে মসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন বলেন, সম্প্রতি চালকদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। সেখানে তাদের সচেতন করা হয়েছে যেন তারা সাবধানে গাড়ি চালান। বিআরটিএর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে চালকদের সচেতন করার জন্য একটি ট্রেনিং করা হবে।

jagonews24

জানা যায়, সম্প্রতি যত্রতত্র ময়লা ফেলা নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। তারপরও নগরবাসীর নির্দিষ্ট সময়ে ফেলানো যাচ্ছে না। তাদের ইচ্ছা মতোই ময়লা ফেলে। যে কারণে নির্দিষ্ট সময়ে নগরী থেকে ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করা যাচ্ছে না।

চালকদের অস্থায়ী নিয়োগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নতুন সিটি করপোরেশন হওয়ায় আমাদের অনেক কিছুই সীমিত। যে কারণে অনেক চালককে স্থায়ী নিয়োগ দেওয়া হয়নি। তবে তাদের বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে।

DailyMoulvibazar.Com এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।