DailyMoulvibazar.com
মৌলভীবাজারবুধবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২২
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. এভিয়েশন
  6. করোনা সর্বশেষ
  7. কৃষি ও প্রকৃতি
  8. ক্যাম্পাস
  9. খেলা
  10. গণমাধ্যম
  11. চাকুরি
  12. ছোটদের পোস্ট
  13. জাতীয়
  14. জোকস
  15. ট্যুরিজম
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মৌলভীবাজারে স্থানীয়ভাবে শহীদ দিবস পালিত

নিউজ ডেস্ক
ডিসেম্বর ২০, ২০২১ ৮:১২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মৌলভীবাজার ডেস্কঃ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মৌলভীবাজারে স্থানীয় শহীদ দিবস পালিত হয়েছে। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর দেশ স্বাধীন হওয়ার চারদিন পর ২০ ডিসেম্বর পাকিস্তানি বাহিনীর ফেলে যাওয়া মাইন বিস্ফোরণে ২৪ জন মুক্তিযোদ্ধা মারা যান।

সোমবার (২০ ডিসেম্বর) দিবসটি পালন উপলক্ষে সকালে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা প্রশাসন, জেলা পরিষদসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শহীদদের স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান। এ ছাড়া জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে।

সকালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা,মৌলভীবাজার রাজনগর ৩ আসনের সংসদ সদস্য নেছার আহমদ,সংরক্ষিত নারী সাংসদ সৈয়দা জোহরা আলাউদ্দিন,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক তানিয়া সুলতানা, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিছবাউর রহমান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) হাসান মোহাম্মদ নাছের রিকাবদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (জেলা বিশেষ শাখা) সুদর্শন কুমার রায়, পৌরসভার মেয়র ফজলুর রহমান, মৌলভীবাজার সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মো: কামাল হোসেন, মৌলভীবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিনা রহমান বাধনসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন।

জানাযায়, ৮ ডিসেম্বর মৌলভীবাজার জেলা (তৎকালীন মহকুমা) শক্রমুক্ত হয়। তৎকালীন মহকুমা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে ওড়ানো হয় স্বাধীন বাংলার লাল-সবুজ পতাকা। মৌলভীবাজারবাসী দীর্ঘদিন ধরে ২০ ডিসেম্বরকে স্থানীয় শহীদ দিবস হিসেবে পালন করে আসছে।
’৭১ সালের এই দিনে বাড়িতে ফেরার উদ্দেশ্যে মুক্তিযোদ্ধারা মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে স্থাপন করা অস্থায়ী মুক্তিযোদ্ধা ক্যাম্পে জড়ো হতে থাকেন। সেখানে একটি কক্ষে শহরের বিভিন্ন জায়গায় মাটিতে পাকিস্তানি বাহিনীর পুঁতে রাখা মাইনগুলো উদ্ধার করে রাখা হয়েছিল। মুক্তিযোদ্ধারা ছিলেন বিজয় উল্লাসে ব্যস্ত। হঠাৎ উদ্ধারকৃত মাইন বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে বিদ্যালয় এলাকা। মুহূর্তের মধ্যে ২৪ জন মুক্তিযোদ্ধার দেহ ছিন্নবিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে এই ছিন্নবিচ্ছিন্ন দেহগুলো একত্রিত করে বিদ্যালয় মাঠের এক পাশে হিন্দু মুসলিম নির্বিশেষে সবাইকে সমাধিস্থ করা হয়। এর পর থেকে দিনটিকে স্থানীয় শহীদ দিবস হিসেবে পালন করেন মৌলভীবাজারবাসী।
এই দিনে যাঁরা শহীদ হয়েছিলেন, তাঁরা হলেন সুলেমান মিয়া, রহিম বক্স খোকা, ইয়ানূর আলী, আছকর আলী, জহির মিয়া, ইব্রাহীম মিয়া, আব্দুল আজিজ, প্রদীপ চন্দ্র দাস, শিশির রঞ্জন দেব, সত্যেন্দ্র দাস, অরুণ দত্ত, দিলীপ দেব, সনাতন সিংহ, নন্দ লাল বাউরী, সমীর চন্দ্র সেন, কাজল পাল, হিমাংশু পাল, জিতেশ চন্দ্র দেব, আবদুল আলী, নূরুল ইসলাম, মোস্তফা কামাল, আশুতোষ দেব, তরণী দেব ও নরেশ চন্দ্র ধর।

DailyMoulvibazar.Com এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।